Sunday, April 19, 2015

Tomari Hota Alam- তোমারই হতে এলাম



অনেক দিন পর, তোমারই হতে এলাম
বলো, হবে কি না!
কেন এতো অভিমান ছিল আমার প্রতি?
আমিতো দোষ করিনি,
বলো, করেছি কি না!

হ্যাঁ, তোমার হতে এসেছি,
শুধু তোমারই
ওই নীলাকাশ, ওই সবুজ বনানী
সবই তোমায় দিতে এসেছি
বলো, নেবে কি না!
আমি স্বপ্নের মতো এঁকেছি রং-তুলিতে
তোমার অপূর্ব মূর্তি,
যাতে কোন খাত নেই
আমি সীমার উপর অসীমের আলোতে
তোমার প্রতি করেছি আর্তি
তাতেও কোন ভুল নেই

আমি ফিরে যেতে আসিনি অদূর থেকে
তোমার দুয়ারে-
অচেনা হতে আসিনি অপরিচিত পথিকের বেশে-
আমি এসেছি তোমার অন্তরে ঠাঁই পেতে
আর উষ্ণ পরশে রাখতে বুকে
বলো, থাকবে কি না!

আরো, না বলা কথা,
অনেক দিনের স্মৃতি
আন্দোলিত হৃদয়ে ছুটে এসেছে এই হৃদয়
তুমি দেবে কি ব্যথা?
দিলেও সয়ে নেব বিরাগ হবনা তোমার প্রতি-
আমিতো অনুরাগের ডালিতে তোমাকে চেয়েছি সদয়
আর আড়ালে থেকো না
আচলের নিচে হতে অশ্রু লুকিয়ে ফেলনা,
এইতো আমি এসেছি
বলো, এসেছি না?





Tuesday, April 14, 2015

O He Niranjon! - ওহে নিরানজন (Pohela Boishak-পহেলা বৈশাখ)

বক্ষ অতলে নিভৃতে কি বলে! শুধাইনি মম অন্তরাত্মাজন-
-হৃদয় সপেছি তব প্রনয়ে ওহে নিরানজন

আসিবে ফিরে ভঙ্গুর তনয়ে নীলাম্বরী
নব অন্তরাত্মা জড়ায়ে বিলাপকারী
সুপ্ত হিয়া, অতৃপ্ত বাসনায় করিছে সমার্পন
যিনি সৃষ্টির সমীপে করিছে ধরাকে আলিঙ্গন

অচেনারে চিনি নাই ডাকিনাই নিরজনে
জ্ঞান-বুদ্ধি বিলোপ-কায়ে শক্তিহীন হইল -সাধনে
ওহে দিবাকর -কি তব তিরস্কার?
কণ্ঠ শুকাইছে ধীর-মস্তিষ্ক
দেখিনু জনম জনম ভর

আমি অস্থির চিত্তে মুদিত নয়নে
ভিক্ষা মাঙ্গি নব ঊষার প্রভাতে,
দীনজন- আধার করিও না-
নব প্রদীপ জ্বালায়ে, ছিনু অপেক্ষায়
তব বন্দন-সঙ্গিতে

পুষ্প কাননে নৃত্য আগামী করিবে কাল
সংশয়ে নিজ মতি, অকালে অখ্যাতি
চাহেনি চার-অঙ্গুলি ভাল

-কালে দেহ মোরে খ্যাতির স্বর্ণ মুকুট
যেন অসাধু বুঝিতে না পারে
নিঠুর বৈভবে ঠাঁই দিও মহাজন,
ছিন্ন পত্রে লিখিনু এই চিরকুট

আলোর বেদিতে সোনায় খোদিত নাম
ওহে নিখিল স্বরূপ তব
সর্বত্র বিরাজমান
নির্ভুলে যেন করিতে পারি সম্মান;
আর ভাঙিয়া দাও যতটুকু কুড়ায়েছি বদনাম

আমি আলোর পুজারী জ্ঞানের আহারি
অতি ক্ষুদ্র-সুক্ষè তব প্রনয় ভিক্ষারি,
চাহে ভিক্ষা করুনাভরে
-নিলাজ অহংকারী-
আমি অদ্ভুত কিম্ভুতে অবিশ্বাসী,
তব প্রনয় শিকারী






Monday, April 13, 2015

Purono Smiritir Mela - পুরনো স্মৃতির মালা(Pohela Boishak-পহেলা বৈশাখ)



পুরনো স্মৃতির মালা
বিধেছে শর নিরবে, সয়েছি অন্তজ্বালা
তবুও থামেনি তার খেলা
আধার নিশিথে

অতৃপ্ত হিয়ার দুপাশ দিয়া
কয়েকটি বছর গিয়াছে ঘুরিয়া-
কিছু ক্রন্দন-জল করিয়াছে শীতল (আমি)
আর দেখিয়াছি হাসিমাখা তরু-তমাল
পিছন ফিরিয়া
আমি শুনিব অপেক্ষায় থাকিয়া
প্রিয়-অপ্রিয় বাক্যরে দিব সামাল

জংলি ফুলের পাপড়ীতে
নামিবে অকাল বরিষন, যেথায়
লুকায়ে ছিল অব্যাক্ত স্মৃতির জঞ্জাল,
সেথায় তুমি আসিলে
করিডোর রাখিবো শূন্য তোমায় করিতে আপন;
সেদিন নিশ্চয়-ঢাকিবে আমায় তব অঞ্চল

দুজন থাকিব দুটি মুখ রাখিয়া সম্মুখ
লতানো ডগায়,
অচেনা পথিক-কূল লাজুক নয়নে-
মৃদু মৃদু স্পর্শ করিবে সময়
তাই জীর্ণ সংশয় নিয়তিরে করিলাম সম্প্রদান
যবে আগত হর্ষধ্বনি কর্ণমূলে করিবে সম্মান
সেই স্মৃতি মুছিবে আজিকের রাত্রিতে-
তাহাতেই মজিবে হৃদয়
অকূলে দিশাহীন সমুদ্র তরঙ্গে
থাকিব আশার বালুতে সদয়





Monday, April 6, 2015

Bortoman - বর্তমান



কু-পথ রচিল মন সু-পথ ছাড়িয়া
যবে ভূ-ত্বকে উঠিল এক শত্রু জম্নিয়া
নিঠুর হইল মন দীনহীনের প্রতি
কেমনে করিল সে এইরূপ ক্ষতি

মমতার স্থলে নির্মম-কঠোর-বর্বরতা
হস্তে উলঙ্গ তরবারিসু-পথে জড়তা
ভুধরের কোণে কোণে আছে মিশিয়া
কিঞ্চিত স্মরণ নাই দেখিছে কে বসিয়া!

পশ্চাতে মর্মবাণী করিল সৃষ্টি বিধাতা-
সম্মুখে লালসা, ভোগ, তৃপ্তি আর অলসতা
মাতৃস্নেহে চুমিছে স্বর্গস্নেহ ভোলাতে
যবে মর্মবাণী শঠতা, কূলেতে কূলেতে

আধার চর্তুদিক- দিশেহারা সংশয়ে
চন্দ্রমল্লিকা বিরূপ হইল রশ্মি না ছড়ায়ে
আহুত প্রাণের আর্তনাদ ভূত জম্নের আশে
বি-পথ ছাড়েনাই ধরিছে প্রেয়সীর রসে







Last 7 Days!

App