Monday, May 20, 2013

Kew Bujhini -কেউ বুঝিনি

কেউ বুঝিনি মধ্যরাতের নিরব সাগরের কান্না
আলোক হীন একাকি নক্ষত্র পানে চেয়ে থাকা
নিস্পলক দুটি আঁখি খুঁজে ফেরে তোমাকে।

কতদিন দেখিনি সেই বকুল ফুলের মালা তোমার হাতে
যা তুমি পরিয়ে দিয়েছ কোমল পরশে।
ভাবনা গুলো সাথীহীন হৃদয় কূলে আছড়ে পড়ে জানিয়ে দেয়
হৃদয়ের রক্তক্ষরণ।
সকল বনানী মাঝে ধূসর ধোঁয়া কুন্ডলী পাকিয়ে
দৃষ্টিকে আচ্ছন্ন করে ফেলেছে।
সবুজ পাতারা শুকিয়ে মচ্মচে হয়ে পদ চাপে চূর্ণ হয়েছে,
শুষ্কতা তাদের করেছে গ্রাস।

হৃদয় রাজ্যের গহিনে তাজা রক্তের প্রবাহ
বারে বারে উচ্ছলায় ওঠে বুকের পাঁজরে
আর নির্মম বাস্তবতা উসকে দিয়েছে যাতনা।
এই হৃদয়ের সকল অভিমান, কষ্ট
সুখের আশায় হয়েছে দিক ভ্রান্ত পথিকের ন্যায়।
কেউ বুঝিনি প্রেমহীন বেদনা সংকুল হিয়ার আর্তনাদ।
শ্রাবণ ধারার জলরাশিতে মিশে
শীতল বুকে জ্বেলে দেয়নি উষ্ণতা।

নিদ্রাহীন নিশি স্মৃতিকে স্মরনে বিধে ক্ষত বিক্ষত করে স্বপ্ন।
আস্তাকুড়ে ফেলে দেয়া মানুষ সুখহীন রজনী কোলে
হেলে পড়ে বেদনায় বালিশহীন শক্ত বিছানায়।

একাকি রাত্রি যাপনে হৃদয় মাঝের গোপন বার্তা শুনে
চমকে উঠি অন্ধকারে দিশাহীন নাবিকের জাহাজের এক প্রান্তে।
হাস্য উজ্জ্বল মুখ গহ্বরে লুকিয়ে থাকা কথা গুলো
বেরিয়ে আসতে পারিনি দুই ওষ্টকে ভেদ করে।
শক্ত প্রাচীর ভেদ করে আসেনি গুমরে মরা কান্নার আওয়াজ।

কষ্টের দিন হামাগুড়ি দিয়ে চলে সম্মুখ আলেয়ার পানে।
ধনুকের তীর বিধতে অক্ষম হয়ে
যেন ফিরে এসে ছিড়ে দিয়েছে আপন অঙ্গকে।
তবুও কেউ বুঝিনি
হিম শীতল হৃদয়ের অস্তিত্বকে।

No comments:

Post a Comment

Last 7 Days!

App